Tamim Ahmed-
Tamim Ahmed
Freelancing
30 Dec 2021 (5 months ago)
Araihazar, Narayanganj, Dhaka, Bangladesh
DATA ENTRY JOBS – ডাটা এন্ট্রির কাজ করে কিভাবে অনলাইনে ইনকাম করা যায়?

আজকাল অধিকাংশ মানুষ ডাটা এন্ট্রি কাজ করে ফ্রিল্যান্সিং করতে বেশি আগ্রহী। কারণ এই কাজটি সহজ। তাই সবাই এটি করতে চায়। কিন্তু আমাদের আরও একটি জিনিস জেনে রাখা উচিত। সবাই যদি শুধু ডাটা এন্ট্রি কাজ করেই ফ্রিল্যান্সার হতে চাইব তাহলে অন্যান্য স্কিলে কাজ করার মতো ফ্রিল্যান্সার কমে যাবে; অন্যদিকে ডাটা এন্ট্রি প্রজেক্টগুলোতে কাজের চেয়ে ওয়ার্কার-এর সংখ্যা বেশি হবে, ফলে একজন ফ্রিল্যান্সার-এর ঠিকমতো কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। এই সমস্যাটি বর্তমানেও রয়েছে, তাই ডাটা এন্ট্রিতে সবাই দ্রুত সফলতা অর্জন করতে পারছে না। অনেকেই প্রজেক্টে অ্যাপ্লিকেশন সাবমিট করে হাঁপিয়ে উঠছে দিনের পর দিন, কিন্তু প্রজেক্ট পাচ্ছে না। তখন কেউ ফ্রিল্যান্সিং এর আশা ছেড়ে দিচ্ছে, আবার কেউ অন্য কিছু শেখার চেষ্টা করছে। চলুন প্রথমেই জেনে নিই যে, ডাটা এন্ট্রির কাজ করতে

হলে কী কী বিষয়ের ওপর অভিজ্ঞ হতে হবে :

  • 1. Sharp Knowledge of Computer Operating
  • 2. Fast Typing Speed
  • 3. Sharp Knowledge of Internet Browsing
  • 4. Sharp Knowledge of Using Email
  • 5. Microsoft word
  • 6. Microsoft Excel
  • 7. Microsoft Powerpoint
  • 8. Google Drive & Docs
  • 9. OneDrive & Docs
  • 10. Web Research
  • 11. Information Collection
  • 12. Searching various things
  • 13. Problem Solving
  • 14. Website Registration ইত্যাদি।
  • ডাটা এন্ট্রিতে কাজ করতে গেলে এসব স্কিল আপনার থাকতেই হবে। কিন্তু একটু লক্ষ করে দেখুন, এগুলো সাধারণত ৩ মাস মেয়াদি বা ৬ মাস মেয়াদি কম্পিউটার অপারেটিং অ্যান্ড অফিসিয়াল কোর্সগুলোতেই শেখানো হয়ে থাকে।

    ডাটা এন্ট্রির সাথে কিছু সিমিলার ক্যাটাগরি রয়েছে, যেমন—

  • 1. Call Center
  • 2. Language Translation
  • 3. Voice Over
  • 4. Audio Transcription
  • 5. Article Writing ইত্যাদি।
  • Call Center

    কল সেন্টার কাস্টমার কেয়ার ম্যানেজারের চাকরি বাংলাদেশেও রয়েছে। তবে আপনি চাইলে একজন ফ্রিল্যান্সার হিসেবেও বিদেশি কোম্পানির কল সেন্টার কাস্টমার কেয়ার ম্যানেজার হিসেবে কাজ করতে পারেন। এখানে আপনার কাজ হচ্ছে কল রিভিস করা ও কল দেওয়া। সেখানে Inbound ও Outbound কল নিয়ে কাজ করতে হয়।

    বাংলাদেশের মতো বিদেশি অনেক কোম্পানি রয়েছে, যাদের অনেক কল আসে এবং সেই কলগুলো রিভিস করার জন্য অনেক কর্মচারী কাজ করেন। তারা মাঝে মাঝে ফ্রিল্যান্সারদের দিয়েও প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট সময়ে প্রতি ঘণ্টা অনুযায়ী পেমেন্ট দিয়ে কাজ করিয়ে নেয়। আপনার ইংলিশ স্পিকিং যদি ভালো হয় তবে আপনি এটিও করতে পারেন। কাজ বা প্রোজেক্ট সংগ্রহ করাই হচ্ছে মূল বিষয়।

    Language Translation

    লেঙ্গুয়েজ বা ভাষা অনুবাদের প্রচুর পরিমাণে কাজ রয়েছে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলো। এখানে মূল কাজ হচ্ছে একটি লেখাকে অন্য আরেকটি ভাষায় অনুবাদ করে লিখে দেওয়া।

    মনে করুন, জাপানি ভাষায় একটি বই রচনা করা হয়েছে বইয়ের মালিক চাচ্ছেন সেই বইটি আরও কয়েকটি ভাষায় তৈরি করতে। এক্ষেত্রে তাকে একটি অনুবাদক এজেন্সির সাহায্য নিতে হবে। অথবা এমন কাউকে দিয়ে কাজ করাতে হবে যে একই সাথে ২-৩টা ভাষা জানেন। জাপানি থেকে যদি চাইনিজ করতে হয় তবে বইয়ের মালিক সেটি জাপানি থেকে ইংরেজি এবং ইংরেজি থেকে চাইনিজ ভাষায় করাবেন। এক্ষেত্রে একজ 36 জাপানি এবং একজন চাইনিজ ব্যক্তির প্রয়োজন হবে, যারা উভয়ই তাদের ভাষা এবং ইংরেজি ভাষা জানেন।

    অন্যদিকে আপনি যদি ইংরেজি জানেন এবং চাইনিজ ও জাপানি ভাষা বা অন্যকোনো ভাষা জেনে থাকেন, তাহলে আপনি এই ভাষার ওপরও লেঙ্গুয়েজ ট্রান্সলেশন বা অনুবাদের কাজ করতে পারবেন। এই ধরনের কাজের চাহিদাও অনেক রয়েছে।

    Voice Over

    আমরা মাঝে মাঝে টেলিভিশনে বিজ্ঞাপনের ভিডিওতে দেখি ক্যামেরার পেছন থেকে কোনো পুরুষ বা মহিলার ভয়েস শোনা যায়, তিনি হয়তো ঐ প্রোডাক্ট নিয়ে কিছু একটা বলেন। অথবা কোনো একটি স্টোরি নিয়ে ভিডিও করা হয়েছে, তার সাথে স্টোরিটি সাবটাইটেল দিয়ে একটি সুন্দর ভয়েসে কেউ বলছেন, এ রকমও দেখা যায়। সুতরাং এগুলোই হলো ভয়েস ওভারের কাজ। সুতরাং আপনার ইংরেজি উচ্চারণ যদি আমেরিকানদের মতো হয় এবং Smooth হয়ে থাকে, তাহলে আপনি তাদের বিভিন্ন ভিডিওতে ভয়েজ ওভার-এর কাজ করতে পারবেন। এসব প্রজেক্ট Fiverr.com মার্কেটপ্লেসে বেশি পরিমাণে পাওয়া যায়।

    Audio Transcription

    অডিও ট্রান্সক্রিপশন বলতে একটি অডিও ফাইলকে লেখায় রূপান্তর করা বোঝায়। এক্ষেত্রে যে-কোনো অডিও ফাইল হতে পারে বা ভিডিও ফাইলও হতে পারে। ধরুন BBC নিউজে ইংরেজি খবরের ৫ মিনিটের একটি ভিডিও রয়েছে। সেখানে আপনাকে বলা হলো যে নিউজ প্রেজেন্টার যা যা বলছেন আপনি সবই ভালোভাবে বুঝে ইংরেজিতে মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে লিখে পাঠান। আমি আপনাকে ৫০ ডলার বা ৪ হাজার টাকা দেব। তাহলে আপনার অভিজ্ঞতা থাকলে অবশ্যই কাজটি করতে পারবেন।

    সুতরাং এটিকেই বলা হয় অডিও ট্রান্সক্রিপশনের কাজ।

    Article Writing

    আর্টিকেল রাইটিং, এটি মূলত লেখালেখির কাজ। আপনার ইংরেজি লিখতে যদি সমস্যা না হয় এবং যে বিষয়টি আপনি ভালো বোঝেন সে বিষয়টি সম্পর্কে আপনাকে লিখতে দেওয়া

    হলে আপনি অবশ্যই লিখতে পারবেন। এগুলোকেই মূলত আর্টিকেল রাইটিং-এর কাজ বলে। মার্কেটপ্লেসগুলোতে এ রকম হাজার হাজার প্রজেক্ট রয়েছে যেখানে বিভিন্ন বায়ার ফ্রিল্যান্সারদের দিয়ে তাদের ওয়েবসাইটে লেখালেখির কাজ করিয়ে নেন।

    মনে করুন একজন বায়ারের একটি “হেলোথ টিপস” এর ওয়েবসাইট রয়েছে, যেখানে তিনি প্রতিদিন হেলথ নিয়ে বিভিন্ন টিপস ও সাজেশন দিয়ে লেখালেখি করেন। তাই এর জন্য হেলথ সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকা প্রয়োজন। আর তাই তিনি এমন একজনকে দিয়ে কাজ করান, যিনি হেলথ সম্পর্কে কিছুটা হলেও জানেন; অন্যদিকে গুগলে অন্যান্য ওয়েবসাইটে রিসার্চ করেও তিনি লেখার জন্য আইডিয়া পেতে পারেন।

    যদি বলা হয় Weight Loss সম্পর্কে ১০০০ ওয়ার্ডের একটি আর্টিকেল লিখুন। তাহলে আপনাকে অবশ্যই ওয়েট লস সম্পর্কে গুগলে রিসার্চ করতে হবে এবং টিপসগুলো তখন আপনার মতো করে লিখে দিতে হবে। কোনো ওয়েবসাইট থেকে কপি করা আইনত দন্ডণীয় অপরাধ। সেটি করা যায় না। সুতরাং এভাবে আপনি কোনো বায়ারের সাথে দির্ঘদিন কাজ করতে পারবেন। ডাটা এন্ট্রির কাজগুলো মূলত দীর্ঘমেয়াদি হয়ে থাকে।

    প্রকৃতপক্ষে ডাটা এন্ট্রির প্রোজেক্টগুলোতে কোনো বায়ার নির্দিষ্ট কোনো কাজ রেগুলার আপনাকে করতে বলবেন না। এখানে আপনি একজন অ্যাসিস্টেন্ট হিসেবে কাজ করছেন। তিনি আপনাকে বিভিন্ন প্রকার কাজ করতে দেবেন। যেমন ইমেইল চেকিং, রিপ্লাই দেওয়া, গুগল ডোক্সের ওয়ার্ড ফাইলে কিছু লেখা বা এক্সেল শিটে কোনো হিসাব করা, গুগলে সার্চ কোরে কোনো একশ্রেণির কোম্পানির মালিকের কন্টাক্ট অ্যাড্রেস কালেক্ট করা, কোনো ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন করা, কোনো ছবি আপলোড করা, ই-কমার্স ওয়েবসাইটের অর্ডার হিসাব করা থেকে শুরু করে এ রকম যাবতীয় কাজ কর্ম আপনাকে করে দিতে হতে পারে।

    তাই অনেকেই চিন্তিত থাকেন যে ডাটা এন্ট্রি কাজ কীভাবে শিখতে হয়। আসলে এখানে শেখার মতো কিছুই নেই। আপনাকে যে কাজটি দেওয়া হবে সেই কাজটি বায়ার আপনাকে স্ক্রিন শেয়ারের মাধ্যমে শিখিয়ে দেবেন। ডাটা এন্ট্রির প্রজেক্ট শুরু করে বায়ার ১ ঘণ্টার একটা ট্রেনিং করাবে আপনাকে। এটি সে রকম কোনো প্রফেশনাল ট্রেনিং নয়। ভিডিও কলের মাধ্যমে বা টিম ভিউয়ার সফটওয়্যার দিয়ে স্ক্রিন শেয়ার করে আপনাকে আপনার কাজ বোঝাবেন। ব্যাস এতটুকুই। আপনাকে শুধু ভালো ইংরেজি জানতে হবে, যেন আপনি ইংরেজিতে লিখতে পারেন এবং পড়ে বুঝতে পারেন। তবে ডাটা এন্ট্রির ক্ষেত্রে ইংরেজি লিখার সময় গ্রামার ভুল করা যাবে না। শুধু বায়ারের সাথে চ্যাট করার সময় আপনি গ্রামার ভুল করলে সমস্যা নেই। কিন্তু তিনি যদি কিছু লিখতে দেন তবে ভুল করা যাবে না।

    সাজেশন হিসেবে আমি বলব একজন নতুন ব্যক্তি ডাটা এন্ট্রির কাজগুলোতে অ্যাপ্লাই করতে পারেন। কিছুদিন দেখুন কেমন লাগছে। পাশাপাশি আপনি অন্যকিছু শিখতে পারেন। এভাবে এগিয়ে গেলে আপনার কাজ সংগ্রহ করার অভিজ্ঞতাও বাড়বে, অন্যদিকে আপনি আরেকটি কাজও শিখতে পারছেন। সুতরাং, দুটি কাজ একই সাথে করতে পারছেন।

    332 Views
    No Comments
    Forward Messenger
    . 37

    Craigslist Update News
    -
    - -
    Android Studios Earning Apps
    -
    - -
    Basics Press Notice
    1
    Technology Updates
    10
    Electronics
    2
    Android Programing
    16
    iOS Programing
    2
    Computer Programing
    13
    Wireless Fidelity
    4
    Hacking tutorials
    15
    Mobile Networks
    3
    Videos Programing
    5
    Movie Review
    4
    Freelancing
    34
    Web Development
    18
    Social Network
    23
    Politics News
    2
    Education Guideline
    6
    Religious Fiction
    15
    Magic Tricks
    3
    LifeStyle
    17
    Uncategorized
    40
    No comments to “DATA ENTRY JOBS – ডাটা এন্ট্রির কাজ করে কিভাবে অনলাইনে ইনকাম করা যায়?”